শুক্রবার ২৭ জানুয়ারি ২০২৩, মাঘ ১৪ ১৪২৯, ০৫ রজব ১৪৪৪

অর্থনীতি

একমাসে সর্বোচ্চ রপ্তানি মাইলফলকে বাংলাদেশ

 আপডেট: ১৬:১৮, ৩ জানুয়ারি ২০২৩

একমাসে সর্বোচ্চ রপ্তানি  মাইলফলকে বাংলাদেশ

বৈশ্বিক অর্থনৈতিক মন্দার মধ্যেই পণ্য রপ্তানিতে নতুন রেকর্ড দেখলো বাংলাদেশ। গত ডিসেম্বরে ৫৩৬ কোটি ৫১ লাখ ৯০ হাজার ডলারের পণ্য রপ্তানি করেছেন দেশের উদ্যোক্তারা। অতীতে আর কোনো মাসেই এই পরিমাণ পণ্য রপ্তানি হয়নি। সর্বশেষ নভেম্বরে সর্বোচ্চ ৫০০ কোটি ডলারের বেশি পণ্য রপ্তানি হয়েছিল।

সোমবার রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর (ইপিবি) প্রকাশিত হালনাগাদ পরিসংখ্যান সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

ডিসেম্বরে ৫৪২ কোটি ১০ লাখ ডলারের পণ্য রপ্তানির লক্ষ্যমাত্রা নিয়েছিল সরকার। তাতে রপ্তানির অর্জন লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ১ দশমিক ০৩ শতাংশ পিছিয়ে থাকলো।

ইপিবি তথ্যানুযায়ী, ২০২২-২০২৩ অর্থবছরের প্রথম ছয় মাসে মোট ২ হাজার ৭৩১ কোটি ১২ ডলারের পণ্য রপ্তানির হয়েছে, যা আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় ১০ দশমিক ৫৮ শতাংশ বেশি।

রপ্তানির এ রেকর্ডের পেছনে বড় ভূমিকা রেখেছে তৈরি পোশাক খাত। গত ৬ মাস মিলিয়ে পোশাক রপ্তানিতে প্রবৃদ্ধি হয়েছে ১৫ দশমিক ৫৬ শতাংশ। ৬ মাসে এ খাতে মোট রপ্তানির হয়েছে ২ হাজার ২৯৯ কোটি ৬৬ লাখ ডলারের পণ্য। এর মধ্যে নিট পোশাক ১২৬৫ কোটি ৯৬ লাখ ডলার (১৩ দশমিক ৪২ শতাংশ প্রবৃদ্ধি) উভেন পোশাক এক হাজার ৩৩ কোটি ৭০ লাখ ডলার (১৮ দশমিক ২৯ শতাংশ প্রবৃদ্ধি) এসেছে।

চামড়া ও চামড়াজাত পণ্য রপ্তানি হয়েছে ৬৩ কোটি ৭২ লাখ ডলারের। এতে প্রবৃদ্ধি হয়েছে ১৩ শতাংশ। আগের অর্থবছরের প্রথম ৬ মাসে রপ্তানির হয়েছিল ৫৬ কোটি ৩৬ লাখ ডলার।

পাট ও পাটজাত পণ্য রপ্তানির হয়েছে ৪৮ কোটি ৫৮ লাখ ডলার, যা আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় ১৭ দশমিক ৬৫ শতাংশ কম। আগের অর্থবছরের প্রথম ৬ মাসে ৫৯ কোটি ডলারের পাট ও পাটজাত পণ্য রপ্তানি হয়েছিল।

কৃষিপণ্য রপ্তানিতে ২৩ দশমিক ২৬ শতাংশ কমেছে। এই খাত থেকে রপ্তানি হয়েছে ৫০ কোটি ১৯ লাখ ডলার। আগের অর্থবছরের ৬৫ কোটি ৪০ লাখ ডলারের কৃষিপণ্য রপ্তানি হয়েছিল।

এদিকে প্লাস্টিক খাত ৬ মাসে মোট ১০ কোটি ডলারের পণ্যট রপ্তানির মাধ্যমে ৪১ শতাংশ প্রবৃদ্ধি পেয়েছে। গত অর্থবছরের প্রথম ছয় মাসে রপ্তানি হয়েছিল ৭ কোটি ডলারের প্লাস্টিক পণ্য।

মন্তব্য করুন: