শনিবার ০২ জুলাই ২০২২, আষাঢ় ১৭ ১৪২৯, ০২ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৩

জাতীয়

বিদ্যুৎ ও গ্যাসের দাম বাড়ানোর বিরুদ্ধে এফবিসিসিআই

 প্রকাশিত: ১৫:৫২, ২১ মে ২০২২

বিদ্যুৎ ও গ্যাসের দাম বাড়ানোর বিরুদ্ধে এফবিসিসিআই

বিদ্যুৎ ও গ্যাসের দাম বাড়লে সেটা মূল্যস্ফীতিকে উসকে দেবে। এটা কোনোভাবে ভালো কিছু হবে না। এই দুইয়ের দাম বাড়ালে তা আত্মঘাতী হবে বলে জানিয়েছে ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন  এফবিসিসিআই। 

এফবিসিসিআই এর শীর্ষ নেতারা মনে করেন, করোনা মহামারী আর ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধের প্রভাবে যে সঙ্কট তৈরি হয়েছে তার মধ্যে বিদ্যুৎ ও গ্যাসের দাম বাড়ালে তাতে সরকার বেকায়দায় পড়বে। 

আজ শনিবার বিদ্যুৎ ও গ্যাসের মুল্য বৃদ্ধির উদ্যোগ নিয়ে প্রতিক্রিয়া জানান এফবিসিসিআই সভাপতি জসিম উদ্দিন। মতিঝিলে ফেডারেশন ভবনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এর নেতিবাচক দিক নিয়ে কথা বলেন। 

জসিম উদ্দিন বলেন, বিদ্যুৎ ও গ্যাসের দাম না বাড়িয়ে জ্বালানি ও বিদ্যুৎ খাতের আমূল সংস্কার আনাই সরকারের জন্য উচিত কাজ হবে। 

তিনি বলেন, “বৈশ্বিক মহামারী ও ইউক্রেইন-রাশিয়ার সঙ্কটে বিশ্বব্যাপী খাদ্যপণ্য, শিল্পের কাঁচামাল, পরিবহন ব্যয়, জ্বালানি তেলের মুল্যবৃদ্ধিতে ব্যবসা পরিচালনার খরচ বেড়েছে। মূল্যস্ফীতিও বেড়েছে।’’ এর সঙ্গে তিনি যোগ করেন, ‘‘এই দুঃসময়ে পাইকারি পর্যায়ে গ্যাস ও বিদ্যুতের মুল্যবৃদ্ধির প্রভাব মূল্যস্ফীতিকে উসকে দেবে।”

সম্প্রতি বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশনের কারিগরি মূল্যায়ন কমিটি বিদ্যুতের দাম প্রায় ৫৮ শতাংশ বাড়ানোর সুপারিশ করেছে। গ্যাসের দাম বাড়ানোর প্রস্তাব বা সিদ্ধান্ত এখনো আসেনি। তবে সেই প্রক্রিয়াও চলমান। 

এফবিসিসিআই সভাপতি জসিম উদ্দিন বলেন, “দাম বৃদ্ধির এখন সঠিক সময় না। অন্তত ছয় মাস সময় নিয়ে বিশ্ব পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করা দরকার। এখন দাম বাড়ালে উৎপাদন খরচ দ্বিগুণ হয়ে যাবে। দেশীয় শিল্প বন্ধ হয়ে যাবে।”

এফবিসিসিআই নেতারা মনে করেন, গ্যাস ও বিদ্যুৎের দাম বাড়ানোর বিষয়টিতে সিদ্ধান্ত আসতে হবে রাজনীতিকদের মাধ্যমে, আমলাদের মাধ্যমে নয়। 

আগামী ২০ বছরে কোন সালে কতো হারে গ্যাস ও বিদ্যুতের দাম বাড়ানো হবে তার একটা আগাম পরিকল্পনা তারা সরকারের কাছে চেয়েছেন। এতে করে বিনিয়োগকারী ও ব্যবসায়ীদের সুবিধা হবে বলে জানান তারা। 

মন্তব্য করুন: