মঙ্গলবার ২১ মে ২০২৪, জ্যৈষ্ঠ ৭ ১৪৩১, ১৩ জ্বিলকদ ১৪৪৫

ইসলাম

রমজানে মহিলাদের মাসিক চলাকালীন ইবাদত পরিকল্পনা

শাইখ উমায়ের কোব্বাদী হাফি.

 প্রকাশিত: ০০:২৬, ১ এপ্রিল ২০২৩

রমজানে মহিলাদের মাসিক চলাকালীন ইবাদত পরিকল্পনা

যে নারীর মাসিক শুরু হয়েছে তিনি শুধু নামায, রোজা, কোরআন তিলাওয়াত ও স্পর্শ করা, বায়তুল্লাহ তওয়াফ ও মসজিদে ইতিকাফ ব্যতীত বাকী সমস্ত ইবাদত করতে পারেন। যেমন–

১. তিনি জিকির করতে পারেন। সুতরাং যে নারীর মাসিক শুরু হয়েছে তিনি বেশী বেশী সুবহানাল্লাহ, আলহামদুলিল্লাহ, লা ইলাহা ইল্লাল্লাহ, আল্লাহু আকবার, সুবহানাল্লাহি ওয়াবি হামদিহি ওয়া সুবহানাল্লাহিল আযিম ইত্যাদি জপতে পারেন।

 

২. তিনি সকাল সন্ধ্যায় পঠিতব্য দোয়াগুলো পড়তে পারেন। যেমন, তিনি সকালে ১০০ বার পড়তে পারেন

لاَ إِلَهَ إِلاَّ اللَّهُ وَحْدَهُ لاَ شَرِيكَ لَهُ، لَهُ الْمُلْكُ وَلَهُ الْحَمْدُ، وَهُوَ عَلَى كُلِّ شَيْءٍ قَدِيرٌ

এটা তার জন্য দশজন দাসমুক্তির অনুরূপ হবে, তার জন্য একশত সওয়াব লেখা হবে, সে দিন সন্ধ্যা পর্যন্ত এটা তার জন্য শয়তান থেকে সুরক্ষা হবে। সে যে সওয়াব পাবে আর কেউ তার চেয়ে উত্তম সওয়াব পাবে না; তবে হ্যাঁ কেউ যদি তার চেয়ে বেশি আমল করে সে পাবে। (বুখারী ৬০৪০)

এছাড়াও সকাল সকাল সন্ধ্যায় পঠিতব্য আরো যে সকল দোয়া আছে, সেগুলোও পড়তে পারেন।

 

৩. কুফরি ও শিরকের ফেতনা বর্তমানে প্রকট। তাই তিনি নিম্নোক্ত দোয়াটি অধিকহারে পড়তে পারেন।

ااَللَّهُمَّ اِنِّىْ اَعُوْذُبِكَ اَنْ أُشْرِكَ بِكَ وَ اَنَا أَعْلَمُ وَ اَسْتَغْفِرُكَ لِمَا لَا أَعْلَمُ

হে আল্লাহ, আমি সজ্ঞানে তোমার সঙ্গে শিরক করা থেকে তোমার কাছে আশ্রয় চাই এবং যা আমার অজ্ঞাত তা থেকেও তোমার কাছে ক্ষমা চাই। (সহিহ আলআদাবুল মুফরাদ ৫৫১)

 

৪. তিনি দোয়া ইউনুস

 لَا إِلَـٰهَ إِلَّا أَنتَ سُبْحَانَكَ إِنِّي كُنتُ مِنَ الظَّالِمِينَ

বেশী বেশী জপতে পারেন। কেননা, কেউ যদি বিপন্ন বা বিপদগ্রস্ত অবস্থায় এই দোয়া পাঠ করে আল্লাহর রহমতে সে বিপদ থেকে উদ্ধার পায়। (তিরমিযি ৩৫০৫)

 

৫. তিনি অধিকহারে ইস্তেগফার করতে পারেন। কেননা, রাসূলুল্লাহ ﷺ বলেছেন,

مَنْ لَزِمَ الاِسْتِغْفَارَ جَعَلَ اللَّهُ لَهُ مِنْ كُلِّ ضِيقٍ مَخْرَجًا وَمِنْ كُلِّ هَمٍّ فَرَجًا وَرَزَقَهُ مِنْ حَيْثُ لاَ يَحْتَسِب

যে ব্যক্তি নিয়মিত ইস্তেগফার করবে আল্লাহ তার সব সংকট থেকে উত্তরণের পথ বের করে দেবেন, সব দুঃশ্চিন্তা মিটিয়ে দেবেন এবং অকল্পনীয় উৎস থেকে তার রিজিকের সংস্থান করে দেবেন। (আবূদাউদ ১৫২০)


৬. তিনি অধিকহারে দুরুদ পাঠ করতে পারেন। কেননা, এক দীর্ঘ হাদিসে এসেছে, উবাই ইবন কা’ব রাযি. যখন রাসূলুল্লাহ ﷺ-কে বলেছিলেন, আমার সবটুকু সময় আপনার উপর দরূদ পাঠে লাগাব? তখন তিনি উত্তর দিয়েছিলেন,
 إِذًا تُكْفَى هَمَّكَ وَيُغْفَرُ لَكَ ذَنْبُكَ
তাহলে তো তোমার চিন্তামুক্তির জন্য তা যথেষ্ট হয়ে যাবে আর তোমার গুনাহ মাফ করা হবে। (তিরমিযি ২৪৫৭)


৭. তিনি অধিকহারে দোয়া ও মুনাজাত করতে পারেন। বিশেষ করে ইফতারের আগে ও ভোর রাতে দোয়া ও কান্নাকাটি করতে পারেন। কেননা, এই সময়ের দোয়া কবুল হওয়ার অধিক সম্ভাবনা থাকে।


যে নারীর মাসিক শুরু হয়েছে তিনি রমজানে উল্লেখিত ইবাদতগুলোসহ অন্যান্য ইবাদত পালন করতে পারেন।

আমরা আল্লাহ তা‘আলার কাছে প্রার্থনা করছি তিনি যা পছন্দ করেন ও যাতে সন্তুষ্ট হন আমাদেরকে যেন তা পালন করার তাওফিক দেন এবং আমাদের নেক আমলগুলো কবুল করে নেন।

মুসলিম বাংলা

মন্তব্য করুন: