বুধবার ১৯ জুন ২০২৪, আষাঢ় ৬ ১৪৩১, ১২ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

অর্থনীতি

বিএসটিআইকে আন্তর্জাতিক মানের প্রতিষ্ঠানে উন্নীত করা হচ্ছে : শিল্পমন্ত্রী

 প্রকাশিত: ১৯:০৯, ২০ মে ২০২৪

বিএসটিআইকে আন্তর্জাতিক মানের প্রতিষ্ঠানে উন্নীত করা হচ্ছে : শিল্পমন্ত্রী

শিল্পমন্ত্রী নুরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুন বলেছেন, বাংলাদেশ স্ট্যান্ডার্ড এ- টেস্টিং ইনস্টিটিউশনকে (বিএসটিআই) আন্তর্জাতিক মানের শক্তিশালী প্রতিষ্ঠানে উন্নীত করার লক্ষ্যে কাজ করছে সরকার।

প্রতিষ্ঠানটিতে দক্ষ জনবল নিয়োগ, যন্ত্রপাতির আধুনিকায়ন, বিশ্বমানের ল্যাবরেটরি স্থাপন, ওয়ানস্টপ সেবা চালুর মত কর্মসূচি বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। এসব কর্মসূচির পূর্ণ বাস্তবায়ন হলে বিএসটিআই একটি আন্তর্জাতিক মানের প্রতিষ্ঠানে উন্নীত হবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

সোমবার রাজধানীর তেজগাঁওয়ে বিএসটিআই সভাকক্ষে বিশ্ব মেট্রোলজি দিবস উপলক্ষ্যে আয়োজিত 'টেকসই ভবিষ্যৎ বিনির্মাণে আজকের পরিমাপ' শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন শিল্প মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব জাকিয়া সুলতানা ও এফবিসিসিআইয়ের প্রেসিডেন্ট মাহবুবুল আলম।বিএসটিআইয়ের মহাপরিচালক এস এম ফেরদৌস আলম এবং পরিচালক (মেট্রোলজি) প্রকৌশলী মো. নুরুল ইসলাম অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন।
মন্ত্রী বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় আইএসওর সদস্যপদ প্রাপ্ত প্রতিষ্ঠান বিএসটিআই প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই দেশের ভোক্তা সাধারণের জন্য মানসম্পন্ন ভোগ্যপণ্য প্রাপ্তির নিশ্চয়তা বিধানে সাফল্যের সঙ্গে কাজ করে যাচ্ছে। তিনি বলেন, বৈশ্বিক এবং আঞ্চলিক ব্যবস্থার প্রেক্ষাপটে বিএসটিআইয়ের আধুনিকায়নে বিভিন্ন উদ্যোগ ও পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন বলেন, বিএসটিআইয়ের জন্য ল্যাবরেটরি সমৃদ্ধ ১০টি আঞ্চলিক কার্যালয় স্থাপন, আমদানি ও রপ্তানি-বাণিজ্যে সহায়তা প্রদানের জন্য চট্টগ্রাম এবং খুলনা বিএসটিআই কার্যালয়কে আধুনিক ল্যাবরেটরি সমৃদ্ধ কার্যালয়ে রূপান্তর করা হচ্ছে।

তিনি জানান, নতুন করে ৬৮টি নতুন ল্যাব স্থাপন ও বিদ্যমান ল্যাব আধুনিকায়ন, দেশীয় পণ্যের রপ্তানি বৃদ্ধির জন্য বিএসটিআই হালাল সার্টিফিকেট প্রদান, ওজন ও পরিমাপের আধুনিক সেবা নিশ্চিতকরণে ২১টি নতুন ল্যাব স্থাপন করা হচ্ছে।

শিল্পমন্ত্রী বলেন, জলবায়ু পরিবর্তন ও বায়ু দূষণের মতো পরিবেশের চ্যালেঞ্জ সম্পর্কে ধারণা লাভ এবং মোকাবিলা করার জন্য সঠিক পরিমাপ গুরূত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। সঠিক পরিমাপ গণনা ও মনিটরিংয়ের মাধ্যমে পরিবেশের কার্বনের পরিমাপ জানা যাবে যা প্রকারান্তরে কার্বন দূষণ রোধে সহায়ক ভূমিকা পালন করবে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে শিল্প মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব জাকিয়া সুলতানা বলেন, ন্যায্য ওজন ও পরিমাপ পরিপালনের লক্ষ্যে  কাজ করে যাচ্ছে বিএসটিআই। এজন্য কর্মকর্তাদের সততা, ন্যায়নিষ্ঠা ও আন্তরিকতার সঙ্গে কাজ করতে হবে। তবেই পণ্যের ভোক্তা ও গ্রাহকদের ন্যায্য অধিকার প্রতিষ্ঠা হবে ও তারা প্রতারিত হবেন না।

আলোচনা সভায় শিল্প উদ্যোক্তা, ব্যবসায়ী, সংশ্লিষ্ট অংশীজনসহ শিল্প মন্ত্রণালয় ও এর আওতাধীন বিভিন্ন দপ্তর-সংস্থার কর্মকর্তারা অংশগ্রহণ করেন।

উল্লেখ্য, প্রতিবছর ২০ মে বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও 'বিশ্ব মেট্রোলজি দিবস' উদযাপন
করা হয়। ওজন ও পরিমাপ বিষয়ক আন্তর্জাতিক সংস্থা ইন্টারন্যাশনাল ব্যুারো অব ওয়েটস এন্ড মেজারস্ (বিআইপিএম) এবং ইন্টারন্যাশাল ব্যুারো অব লিগ্যাল মেট্রোলজি (বিআইএমএল) এবারে দিবসটির প্রতিপাদ্য নির্ধারণ করেছে ‘টেকসই ভবিষ্যৎ বির্নিমাণে আজকের পরিমাপ’।