বুধবার ২৪ এপ্রিল ২০২৪, বৈশাখ ১১ ১৪৩১, ১৫ শাওয়াল ১৪৪৫

ইসলাম

নারীর সম্মান সংরক্ষিত হয়েছে মুসলমানের কাছে

মুফতি মুহাম্মাদ নূরুল্লাহ

 আপডেট: ১১:০০, ৪ এপ্রিল ২০২৩

নারীর সম্মান সংরক্ষিত হয়েছে মুসলমানের কাছে

সর্বশেষ ও সর্বশ্রেষ্ঠ রাসুল হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের মাধ্যমে যে উম্মত গঠিত হয়েছে তারাই পৃথিবীর সমস্ত মানুষকে অধিকার ফিরিয়ে দেওয়ার জন্য আদিষ্ট। এ কারণে তাদের জীবনের আমূল পরিবর্তন করতে হয়েছে আর ইনসাফ ও ইসলামী আদালতের প্রতিষ্ঠার জন্য অভাবনীয় সংগ্রাম করতে হয়েছে। পৃথিবীর জাহেলিয়াতের আদিম একটি অত্যাচার ছিল নারীর প্রতি। ইসলাম নারীর জীবন ও সম্মান ফিরিয়ে দিয়েছে।

আজও পৃথিবীতে প্রকৃত মুসলমানের কাছেই রয়েছে নারীর নিরাপত্তা ও সম্মান।

বিগত কয়েক দশকের মধ্যে ১৪ কোটির বেশি নারী নিয়ে খোঁজ হয়ে গেছে। তাদেরকে হয়তো হত্যা করা হয়েছে না হয় দেশান্তর করা হয়েছে না হয় বিক্রি করা হয়েছে না হয় পাচার করা হয়েছে। খবর বিভিন্ন আন্তর্জাতিক মিডিয়ার। ভারতে প্রতি বছর ১০ লক্ষ কন্যা সন্তানের ভ্রূণ হত্যা করা হচ্ছে। চীনেও তদ্রূপ। এটা হলো কিছু পত্রিকার দুর্দান্ত রিপোর্ট।
এছাড়াও দেশে দেশে যেভাবে নারীর ইজ্জত সম্মান ভূলুণ্ঠিত হয়েছে, নারী হয়েছে নিগ্রহের শিকার ও সম্পত্তি থেকে বঞ্চিত আর হয়ে উঠেছে ভোগের পণ্য তা কোনো প্রকৃত মুসলমান দ্বারা হয় নি।

বাংলাদেশে এখনো কন্যা সন্তান জন্ম হলে মিষ্টি বিতরণ করা হয়। এর ঠিক বিপরীত কালচার লক্ষ্য করা যায় ভারতসহ অন্য দেশগুলোতে। পশ্চিমা দেশগুলোতে নারীর বয়স ১৫ হওয়ার পর পিতা-মাতা তার ভরণপোষণের দায়িত্ব নেয় না। তাকে বের হয়ে যেতে হয় পিতার ঘর ছেড়ে। এগুলো মিডিয়া বলে না কিন্তু জনগণ পরম্পরায় সেসব তথ্য আমাদেরকে শুনিয়ে থাকেন।

অনলাইন নিউজ পোর্টাল ২৪

মন্তব্য করুন: