বৃহস্পতিবার ১১ আগস্ট ২০২২, শ্রাবণ ২৬ ১৪২৯, ১৩ মুহররম ১৪৪৪

জাতীয়

সুনামগঞ্জে পৃথক ঘটনায় ৩ শিশুসহ ৫ জনের মৃত্যু

 প্রকাশিত: ১৯:২৭, ৩০ জুন ২০২২

সুনামগঞ্জে পৃথক ঘটনায় ৩ শিশুসহ ৫ জনের মৃত্যু

সুনামগঞ্জে বিভিন্ন ঘটনায় একদিনে তিন শিশুসহ পাঁচজনের প্রাণহানী ঘটেছে। আহত হয়েছে আরও দুই শিশু। নিহদের মধ্যে, দুইজন বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে, দু’জন পানিতে ডুবে এবং একজন আশ্রয়কেন্দ্রের ছাদ থেকে পড়ে মারা যায়।

বুধবার জেলার বিভিন্ন উপজেলায় এসব দুর্ঘটনা ঘটে। স্থানীয় প্রশাসন ও জনপ্রতিনিধিদের সঙ্গে কথা বলে এসব তথ্য নিশ্চিত হওয়া গেছে।

দোয়ারাবাজার থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) দেবদুলাল ধর জানান, উপহেলার জীবনপুরে মসজিদের মাইকে মাগরিবের আজান দিতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মারা গেছেন মো. শামছুন নূর (৬৫)। তিনি জীবনপুর (সোনাইনগর) গ্রামের মৃত রোয়াব উল্ল্যাহর পুত্র। 

পাশের উপজেলা তাহিরপুরে বুধবার বিকেলে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মারা যায় আরও এক শিশু। উপজেলার উত্তর শ্রীপুর ইউনিয়নের মাটিয়ান গ্রামে পল্লী বিদ্যুতের তারে জড়িয়ে গুরুতর আহত হয় মাহমুদ মিয়া। হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অফিসার ডা. মির্জা রিয়াদ হাসান মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

বুধবার বিকেলে সদর উপজেলার হবতপুর গ্রামে পানিতে ডুবে শিশু ইস্তাক আহমদের (৪) মৃত্যু হয়েছে। সে হবতপুর গ্রামের ইমাম হোসেনের ছেলে। বাড়ির পাশে বন্যার পানিতে পড়ে তলিয়ে যায় শিশুটি। পরে তাকে উদ্ধার করে সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
এর আগে, বুধবার ভোররাতে জামালগঞ্জ উপজেলা থেকে মাছ নিয়ে মোহনগঞ্জ যাওয়ার পথে পাকনার হাওরে ঝড়ের কবলে পড়ে একটি নৌকা ডুবে যায়। এ ঘটনায় মাছ ব্যবসায়ী বিপ্টু মজুমদার (২২) নিখোঁজ হন। পরে, বুধবার সকালে তার লাশ উদ্ধার করা হয়। তিনি উপজেলার ফেনারবাক ইউনিয়নের চামারগাঁও গ্রামের বিধান মজুমদারের ছেলে।
জামালগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মীর আবদুন নাসের জানান, বিপ্টু মাছ ব্যবসায়ী ছিলেন। বুধবার সকালে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

বুধবার বিকেলে তাহিরপুর উপজেলায় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে জিসান (১০) ও পারভেজ মিয়া (১১) নামের দুই শিশু আহত হয়েছে। আহতদের বাড়ি উপজেলার দক্ষিণ শ্রীপুর ইউনিয়নের মানিকখিলা গ্রামে।

বুধবার সকালে জগন্নাথপুরে একটি আশ্রয়কেন্দ্রের তিনতলা ভবন থেকে পড়ে জহিরুল ইসলাম (১২) নামের এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। সে পৌরসভার জগন্নাথপুর এলাকার উকিল আলীর পুত্র।

স্থানীয়রা জানান, জগন্নাথপুর পৌরসভার জগন্নাথপুর এলাকার উকিল আলীর বসতঘরে পানি উঠে যাওয়ায় তিনি পরিবার পরিজন নিয়ে আশ্রয় নেন স্থানীয় এক প্রবাসীর বাড়ির তিন তলা ভবনের ছাদে। বুধবার সকালের দিকে ছাদে উঠে একটি চেয়ারে বসতে গিয়ে অসাবধানতাবশত ছাদ থেকে নিচে পড়ে যায় জহিরুল। স্থানীয়রা উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নেয়ার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেছেন স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর শফিকুল হক।

মন্তব্য করুন: