ব্রেকিং:
বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত সাড়ে ১১ কোটি, মৃত্যু সাড়ে ২৫ লাখ

বুধবার   ০৩ মার্চ ২০২১,   ফাল্গুন ১৯ ১৪২৭,   ১৮ রজব ১৪৪২

সর্বশেষ:
কারাগারে লেখক মুশতাকের মৃত্যু নিয়ে যা বললেন গোলাম রাব্বানী আন্দামান সাগরে ভাসমান রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশে পাঠাতে চায় ভারত
৪৬

কোম্পানীগঞ্জে আজও হরতাল চলছে কাদের মির্জার ডাকে

প্রকাশিত: ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১  

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে আজও হরতাল চলছে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের ছোট ভাই আবদুল কাদের মির্জার ডাকে।

নোয়াখালীর ডিসি, এসপি, কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি ও ওসি তদন্তের প্রত্যাহার এবং কোম্পানীগঞ্জ চরকাঁকড়া ইউনিয়নের আওয়ামী লীগ নেতা ফখরুল ইসলাম সবুজকে গ্রেপ্তারের দাবিতে বসুরহাট পৌর মেয়র আবদুল কাদের মির্জা এ হরতালের ডাক দেন।

স্থানীয় সূত্র জানায়, হরতালের সমর্থনে সকাল থেকে চলছে মিছিল ও সমাবেশ। হরতালের কারণে দোকান, ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। কোম্পানীগঞ্জ থেকে চলছে না দূরপাল্লা ও অভ্যন্তরীণ কোনো যানবাহন। আজ বৃহস্পতিবার সকাল ৬টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত এ হরতাল চলবে।

একই দাবিতে গত মঙ্গলবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) রাত সাড়ে ৮টা থেকে তিনি থানা ঘেরাও কর্মসূচি শুরু করেন কাদের মির্জা। পরদিন বুধবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) সকাল থেকে শুরু করেন হরতাল।

গতকাল বুধবার সকাল থেকে কয়েক শ নেতাকর্মী নিয়ে থানার ফটকে অবস্থান নেন কাদের মির্জা। হরতালের কারণে উপজেলার দোকানপাট সব বন্ধ ছিল। কোনো যানবাহন কোম্পানীগঞ্জে ঢুকতে পারেনি।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গত মঙ্গলবার (১৬ ফেব্রুয়ারি)  সন্ধ্যায় কোম্পানীগঞ্জের বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জা ফেনীর দাগনভূঞা ও চট্টগ্রামে তাঁর ওপর হামলা ও তাঁকে হত্যার ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে বসুরহাট রূপালী চত্বরে সংবাদ সম্মেলন করেন। এতে তিনি ফেনীর সাংসদ নিজাম উদ্দিন হাজারী, নোয়াখালীর সাংসদ একরামুল করিম চৌধুরীসহ দাগনভূঞা ও সোনাগাজী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানদের অভিযুক্ত করেন।

ওই সংবাদ সম্মেলন চলাকালে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় কোম্পানীগঞ্জ চরকাঁকড়া ইউনিয়নের স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান পদ প্রার্থী ফখরুল ইসলাম সবুজ টেকের বাজারে কাদের মির্জার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিল করেন। প্রতিবাদ সমাবেশে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী সবুজ কাদের মির্জার কঠোর সমালোচনা করেন। তাৎক্ষণিক স্থানীয় নেতা কর্মীরা সবুজকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে। এ সময় দুই পক্ষের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে।

পরে আটক সবুজকে পুলিশ ছেড়ে দেওয়ার অভিযোগে সরকার দলীয় নেতাকর্মী ও সমর্থকদের নিয়ে কাদের মির্জা থানার সামনে অবস্থান ধর্মঘট শুরু করেন।


অনলাইন নিউজ পোর্টাল
অনলাইন নিউজ পোর্টাল
এই বিভাগের আরো খবর