ব্রেকিং:
সংরক্ষিত নারী আসনের ভোট ৪ মার্চ ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় নির্বাচন উপলক্ষে ১৮ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন.

সোমবার   ১৪ অক্টোবর ২০১৯   আশ্বিন ২৮ ১৪২৬  

সর্বশেষ:
সংরক্ষিত নারী আসনের ভোট ৪ মার্চ ওয়েজবোর্ডের বিষয়টিকে আমরা বিশেষভাবে গুরুত্ব দিচ্ছি
১৫০

আনোয়ারায় ভাইস চেয়ারম্যান পদে মনোনয়ন প্রত্যাশীদের দৌড়ঝাপ

ডেস্ক রিপোর্ট

প্রকাশিত: ২২ জানুয়ারি ২০১৯  

একাদশ সংসদ নির্বাচন শেষ হতে না হতেই আনোয়ারায় বইছে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের হাওয়া। তাই আটঘাট বেঁধেই মাঠে নামার প্রস্তুতি নিচ্ছেন সম্ভাব্য প্রার্থীরা। দলীয় মনোনয়ন পেতে প্রবীণদের পাশাপাশি নবীনরাও দৌড়ঝাপ শুরু করেছেন। তাদের লক্ষ্য একটাই যে করেই হোক দলীয় মনোনয়ন চায়।

জানা যায়, প্রথমবারের মতো দলীয় প্রতীকে উপজেলা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। আগামী মার্চে সারাদেশে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের ভোটগ্রহণ করতে চায় নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ইতোমধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে সম্ভ্যাব্য প্রার্থীরা নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করেছেন। দলীয়ভাবে মনোনয়ন পেতে জোর লবিং চালাচ্ছেন। স্থানীয় সংসদ সদস্য ও ভূমিমন্ত্রী, জেলা আওয়ামী লীগ ও দলের শীর্ষ নেতাদের সাথে যোগাযোগও শুরু করে দিয়েছেন তাঁরা। তবে এই নির্বাচনে বিএনপি অংশগ্রহণ করবে কিনা তা নিশ্চিত করে জানা যায়নি। 

এবারের উপজেলা নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ থেকে নৌকা প্রতীকের মনোনয়ন চাইবেন বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান ও উপজেলা আ.লীগ এডহক কমিটির সদস্য মৃণাল কান্তি ধর, উপজেলা আ.লীগ এডহক কমিটির সদস্য ও পূজা কমিটির আহবায়ক সুগ্রীব মজুমদার দোলন, রায়পুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. আমিন শরীফ, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক জাফর ইকবাল তালুকদার, যুবলীগ নেতা মোহাম্মদ করিমসহ আরও কয়েকজন নেতা।

মনোনয়ন প্রত্যাশী সুগ্রীব কুমার মজুমদার দোলন  বলেন, আমি দীর্ঘদিন ধরে আওয়ামী লীগের রাজনীতির সাথে জড়িত। সাধারণ মানুষের সেবার করার লক্ষ্যে আগামী উপজেলা নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান পদে মনোনয়ন চাইব। আশা করি আমার অভিভাবক ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ এমপি মহোদয় আমাকে মূল্যায়ন করবেন।

রায়পুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. আমিন শরীফ বলেন, আমি আওয়ামী লীগের রাজনীতির সাথে ছাত্রজীবন থেকে জড়িত। দলের দুঃসময়েও সাথে ছিলাম এখনও আছি ভবিষ্যতেও থাকব। আগামী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান পদে মনোনয়ন চাইব। যদি আমার অভিভাবক ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ এমপি মহোদয় আমাকে যোগ্য মনে করেন তাহলে আমি নির্বাচন করব।

যুবলীগ নেতা মোহাম্মদ করিম বলেন, আমি দীর্ঘদিন যাবৎ আওয়ামী লীগের রাজনীতির সাথে জড়িত। ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ এমপি মহোদয় আমাকে যোগ্য মনে করেন তাহলে আমি নির্বাচন করব।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে আনোয়ারা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এম.এ মালেক বলেন, আওয়ামী লীগ একটি বড় দল। যে কেউ মনোনয়ন চাইতে পারে। আমাদের রাজনীতিক অভিভাবক ভূমিমন্ত্রী যাকে যোগ্য মনে করবেন তাঁকে মনোনয়ন দিবেন।


অনলাইন নিউজ পোর্টাল
অনলাইন নিউজ পোর্টাল
এই বিভাগের আরো খবর