ব্রেকিং:
করোনায় ৩৬ লাখ পরিবার পাবে প্রধানমন্ত্রীর `ঈদ উপহার` বিশ্বে কোভিড -১৯(করোনা ভাইরাসে) প্রায় ৩০ লাখ মানুষের মৃত্যু। সাবেক মন্ত্রী আব্দুল মতিন খসরুকে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন আব্দুল মতিন খসরুর জানাজা সম্পন্ন, বাদ আসর দাফন কারিগরির আকস্মিক দুর্বিপাকে আন্তঃব্যাংক চেক লেনদেন বন্ধ সাবেক আইনমন্ত্রী আব্দুল মতিন খসরুর দ্বিতীয় জানাজা সম্পন্ন ভারতে ৫ কোটি স্পুটনিক টিকা সরবরাহ করবে রাশিয়া বিপজ্জনক মোড় নিচ্ছে ইরান ও ইসরায়েলের ছায়াযুদ্ধ টিকা কিনতে বাংলাদেশ-বিশ্বব্যাংকের ঋণচুক্তি সই

শনিবার   ১৭ এপ্রিল ২০২১,   বৈশাখ ৪ ১৪২৮,   ০৪ রমজান ১৪৪২

সর্বশেষ:
প্রবাসী বাংলাদেশি কর্মীদের জন্য শনিবার থেকে বিশেষ ফ্লাইট চালু
২০৭

৮০০ বছর পর বিরল দৃশ্যের দেখা মিলবে ২১ ডিসেম্বর

প্রকাশিত: ৭ ডিসেম্বর ২০২০  

বিরল মহাজাগতিক দৃশ্যের সাক্ষী হতে চলেছে বিশ্ব। আগামী ২১ ডিসেম্বর সূর্য ডুবে যাওয়ার পর পৃথিবী থেকেই খালি চোখেই দেখা যাবে বৃহস্পতি ও শনি। ৮০০ বছর পর এমন দৃশ্য দেখা যাবে।

ওয়াশিংটন পোস্ট জানিয়েছে, ডিসেম্বরের তৃতীয় সপ্তাহ থেকেই বৃহস্পতি ও শনিগ্রহ খুব কাছাকাছি চলে আসবে। পশ্চিম আকাশে চোখ রাখলেই ওই মহাজাগতিক দৃশ্য দেখা যাবে। তবে নাসা জানিয়েছে, গ্রহ দুইটি এতো নিকটে আসার পরও তাদের মধ্যে লাখ লাখ মাইল দূরত্ব থাকবে।

জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, মোটামুটি প্রতি ১৯ বছর ৭ মাস অন্তর এ দু’টি গ্রহ পরস্পরের কাছাকাছি আসে। ১২২৬ সালের ৪ মার্চ এমন কাছাকাছি এসেছিল বৃহস্পতি আর শনি। আর শেষবার ১৬২৩ সালে এতটা কাছাকাছি এসেছিল গ্রহ দু’টি। কিন্তু সেবার পৃথিবী থেকে ওই ঘটনা দেখা যায়নি।

গত গ্রীষ্ম থেকেই পৃথিবীর আকাশ থেকে বৃহস্পতি ও শনির কাছাকাছি এগিয়ে আসার ঘটনা লক্ষ করা যাচ্ছে। সূর্যাস্তের এক ঘণ্টা পর পশ্চিম আকাশে এ দৃশ্য দেখা যায়।

উৎসাহী ব্যক্তিরা তার আগে থেকেই রাতের আকাশে চোখ রাখতে পারেন। মোটামুটি ১৫ ডিসেম্বর থেকে সূর্য ডোবার পর থেকেই পশ্চিম আকাশে পরপর কয়েক দিন চোখ রাখলেই বোঝা যাবে, দু’টি গ্রহ কাছাকাছি চলে আসছে। এরপর ২১ ডিসেম্বর সবচেয়ে কাছে আসবে এ দুটি গ্রহ।

পৃথিবীর নিরক্ষীয় অঞ্চলে সবচেয়ে পরিষ্কারভাবে দেখা মিলবে এ দৃশ্যের। ভবিষ্যতে ২০৮০ সালের ১৫ মার্চ এবং ২৪০০ সালের আগে এধরণের ঘটনা প্রত্যক্ষ করার সুযোগ পাওয়া যাবে না।


অনলাইন নিউজ পোর্টাল
অনলাইন নিউজ পোর্টাল
এই বিভাগের আরো খবর