ব্রেকিং:
সংরক্ষিত নারী আসনের ভোট ৪ মার্চ ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় নির্বাচন উপলক্ষে ১৮ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন.

বুধবার   ১৩ নভেম্বর ২০১৯   কার্তিক ২৯ ১৪২৬  

সর্বশেষ:
সংরক্ষিত নারী আসনের ভোট ৪ মার্চ ওয়েজবোর্ডের বিষয়টিকে আমরা বিশেষভাবে গুরুত্ব দিচ্ছি
১৪৩৮

৪ মন্ত্রীকে বরণে চট্টগ্রাম আ.লীগের ব্যাপক প্রস্তুতি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৮ জানুয়ারি ২০১৯  

চট্টগ্রাম-পার্বত্য চট্টগ্রাম থেকে তিনজন পূর্ণ মন্ত্রী ও একজন উপ-মন্ত্রী হিসেবে শপথ গ্রহণ করেছেন। 
সদ্য ঘোষিত মন্ত্রিসভায় রাঙ্গুনিয়া থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্য ড. হাছান মাহমুদকে তথ্যমন্ত্রী, আনোয়ারা থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্য সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদকে ভূমিমন্ত্রী, বান্দরবান থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্য বীর বাহাদুরকে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রী ও নগরীর কোতোয়ালী আসন থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেলকে শিক্ষা উপ-মন্ত্রী করা হয়েছে।

 

জানা যায়, আগামী বুধবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে টুঙ্গিপাড়া যাবেন মন্ত্রিসভার সদস্যরা। সেখান থেকে ফিরেই নেতারা নিজ নিজ নির্বাচনী এলাকায় যাবেন। ইতোমধ্যে সদ্য মন্ত্রীত্ব পাওয়া নেতাদের বরণে নানা পদক্ষেপ গ্রহণ করা হচ্ছে। এরমধ্যে সংবর্ধনা সভা,  আনন্দ মিছিলের মতো কর্মসূচি গ্রহণ করছেন নেতাকর্মীরা। সারা চট্টগ্রামে মন্ত্রীদের বরণে উৎসব শুরু হচ্ছে। আজকালের মধ্যেই উত্তর, দক্ষিণ ও নগর আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকেও মন্ত্রীদের সংবর্ধনা দেয়ার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

 

চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান বলেন, ‘মন্ত্রীদের আমরা লালদিঘিতে বড় আকারে সংবর্ধনা দিব। আমরা চট্টগ্রাম থেকে ৪ জন মন্ত্রী পেয়ে খুশি। উনাদের নেতৃত্বে চট্টগ্রামের উন্নয়নের গতিশীলতা বাড়বে। এরা প্রত্যেকেই ডায়ানমিক নেতৃত্ব।’

 

রাঙ্গুনিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি খলিলুর রহমান বলেন, ‘ড. হাছান মাহমুদকে মন্ত্রী করায় রাঙ্গুনিয়াবাসী উৎফুল্ল এবং খুব খুশি। সে যেভাবে পরিশ্রম করে বঙ্গবন্ধু কন্যার জন্য নিবেদিতভাবে কাজ করছে মন্ত্রিত্ব তার প্রাপ্য ছিল। উনি ঢাকায় কয়েকদিন ব্যস্ত সময় পার করবেন। এরপর চট্টগ্রামে আসলেই আমরা রাঙ্গুনিয়াবাসী সংবর্ধনা দিবো।’

 

পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এর ব্যক্তিগত সহকারী সাদেক হোসেন চৌধুরী বলেন, ‘পার্বত্য চট্টগ্রামবাসী পূর্ণমন্ত্রী পেয়েছে যা সত্যিই আনন্দের। আগামী ১৭ জানুয়ারি মন্ত্রী মহোদয় বান্দরবান যাওয়ার সম্ভাব্য দিন নির্ধারণ করেছেন।

 

শিক্ষা উপ-মন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেলের পরিবারের ঘনিষ্টজন ওসমান গণি বলেন, ‘এখনো চট্টগ্রাম যাওয়ার বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয়নি। কবে যাবেন সেটি জানানো হবে।’

 

ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদের ব্যক্তিগত সহকারী ইমরান বাবু বলেন, ‘পরশুদিন চট্টগ্রামে আসার সম্ভাবনা আছে। আনোয়ারা-কর্ণফুলীবাসী মাননীয় মন্ত্রীকে বরণ করতে অপেক্ষায় আছেন। সাধারণ মানুষের মধ্যে উৎসাহ বেড়েছে। প্রতিমন্ত্রীর পর পূর্ণমন্ত্রী হওয়া আমাদের জন্য গর্বের বিষয়। উপজেলা আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে মন্ত্রীকে বরণে নানা পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে।’


অনলাইন নিউজ পোর্টাল
অনলাইন নিউজ পোর্টাল
এই বিভাগের আরো খবর