ব্রেকিং:
সংরক্ষিত নারী আসনের ভোট ৪ মার্চ ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় নির্বাচন উপলক্ষে ১৮ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন.

সোমবার   ১৪ অক্টোবর ২০১৯   আশ্বিন ২৮ ১৪২৬  

সর্বশেষ:
সংরক্ষিত নারী আসনের ভোট ৪ মার্চ ওয়েজবোর্ডের বিষয়টিকে আমরা বিশেষভাবে গুরুত্ব দিচ্ছি
১৪৯

ক্ষমা চাইলেন করন জোহর!

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ২৫ জানুয়ারি ২০১৯  

ভারতের জনপ্রিয় টিভি অনুষ্ঠান ‘কফি উইথ করন’। সম্প্রতি এই অনুষ্ঠানে ভারতীয় ক্রিকেটার হার্দিক পান্ডিয়া ও লোকেশ রাহুল এসেছিলেন অতিথি হয়ে। সেখানে নারীদের নিয়ে তারা আপত্তিকর মন্তব্য করেন।

পর্বটি প্রচারের পর থেকেই শুরু হয় এক বিতর্ক। তার জের ধরে বন্ধ হবার উপক্রম করনের অনুষ্ঠানটি।

তবে বিতর্ক থামাতে নিজেই মুখ মুখলেন করন জোহর। এ বিষয়ে সরাসরি ক্ষমাও চেয়েছেন তিনি।

এ প্রসঙ্গে ভারতীয় একটি সংবাদমাধ্যমে করন জোহর বলেন, ‘আমি মনে করি, এ জন্য আমিই দায়ী। কারণ এটি আমার শো, আমার প্ল্যাটফর্ম। আমি তাদের অতিথি হিসেবে আমন্ত্রণ জানিয়েছি, সুতরাং অনুষ্ঠানে অনাকাঙ্ক্ষিত যে ঘটনা ঘটেছে তার দায়িত্ব আমার।

আমি নিজেকে নির্দোষ প্রমাণের চেষ্টা করছি না। তাদের দুজনকে আমি যে প্রশ্নটি করেছিলাম, আমার শোতে আসা সবাইকেই এটি করে থাকি। দীপিকা ও আলিয়া আমার শোতে এসেছিল, আমি তাদেরকেও প্রশ্নটি করেছিলাম। এর প্রতিউত্তর যেটি আসে সেটিতে আমার করার কিছু নেই।’

তিনি জানান, তার ‘কফি উইথ করন’ অনুষ্ঠানের হয়ে বেশ কয়েকজন নারী কাজ করেন। তারা বিষয়টি নিয়ে তখন কোনো আপত্তি জানাননি। জনপ্রিয় এ নির্মাতা বলেন, ‘১৬-১৭জন নারী নিয়ে আমার একটি কন্ট্রোল রুম রয়েছে। বলা যায় ‘কফি উইথ করন’ অনুষ্ঠান পুরোটাই নারীরা চালায়, সেখানে আমিই একমাত্র পুরুষ। কেউ এর প্রতিবাদ করেনি তখন। সম্ভবত তাদের উপর আমি নির্ভরশীল ছিলাম বেশি। এর ফলে বিষয়টি নিয়ে আমি বেশি চিন্তা করিনি।’

করন আরো বলেন, ‘তাদের সঙ্গে যা হয়েছে তার জন্য আমি অনুতপ্ত। এর মধ্যে কথা উঠেছে, আমি নাকি টিআরপি’র জন্য খুব আনন্দে রয়েছি। আমি টিআরপি নিয়ে চিন্তা করি না। এটি আমার ক্যারিয়ার নয়, এর একটি অংশ। কিন্তু ক্রিকেট তাদের ক্যারিয়ার।

আমি মেনে নিচ্ছি, যা বলা হয়েছে তা সীমা অতিক্রম করেছে কিন্তু এর জন্য ক্ষমা চাইছি কারণ এটি আমার অনুষ্ঠান। আমি মনে করি তারা দুজন ইতোমধ্যে তাদের সাজা পেয়ে গেছেন। পরবর্তী পর্বগুলো করার সময় সতর্ক থাকব।’


অনলাইন নিউজ পোর্টাল
অনলাইন নিউজ পোর্টাল
এই বিভাগের আরো খবর