ব্রেকিং:
আল্লামা শাহ আহমদ শফীর জানাজা শনিবার বাদ জোহর ভারতের আরও দুই এলাকা দাবি নেপালের ১৪ অক্টোবর থেকে ২২ দিন ইলিশ ধরা নিষিদ্ধ

শনিবার   ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০,   আশ্বিন ৪ ১৪২৭,   ৩০ মুহররম ১৪৪২

সর্বশেষ:
কাশ্মীরে ক্ষমতার অপব্যবহার, স্বীকার করলো ভারতীয় সেনাবাহিনী আল্লামা শাহ আহমদ শফীর মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর শোক রংপুরে দুই বোনের মরদেহ উদ্ধার নিজ বাড়ি থেকে আফগানিস্তান সরকার ও তালেবান বিদ্রোহীদের মধ্যে শান্তি আলোচনার মধ্যেই তীব্র লড়াই, নিহত ৪৯

জনাব মাওলানা মুহাম্মাদ আবদুল মালেক দামাত বারাকতুহুম

আসসালামু আলাইকুম ওয়ারাহমাতুল্লাহি ওয়াবারাকাতুহু  

বাদ সালাম!  

আশা করি আপনি ভালো আছেন। আল্লাহ তাআলা আপনাকে সুস্থ রাখুন। বিগত কয়েক মাস আগে আমি একটি গ্রন্থ পাই। নাম ‘প্রমাণিত হাদিসকে জাল বানানোর স্বরূপ উন্মোচন’। গ্রন্থনা ও সংকলন : মুহাম্মাদ শহিদুল্লাহ বাহাদুর। পরিবেশনায় : ইমাম আযম (রহ.) রিসার্চ সেন্টার, বাংলাদেশ। প্রথম প্রকাশ : ১২ রবিউল আউয়াল, ১৪৩৬ হিজরি; ৪ জানুয়ারী, ২০১৫ ইংরেজী। এ বইয়ে আপনার তত্ত্বাবধানে লেখা ‘প্রচলিত জাল হাদীসে’র খণ্ডন করা হয়েছে। পাশাপাশি হযরত মাওলানা জুনায়েদ বাবুনগরী দামাত বারাকাতুহুম-এর তত্ত্বাবধানে লেখা একই নামের গ্রন্থ ‘প্রচলিত জাল হাদীসে’রও খণ্ডন করা হয়েছে। গ্রন্থটি পড়ার সময় ড. আব্দুল্লাহ জাহাঙ্গীর কৃত ‘হাদীসের নামে জালিয়াতি’ এবং শায়েখ নাসিরুদ্দীন আলবানী রাহ. কৃত ‘সিলসিলাতুল আহাদীসিয যয়ীফা ওয়ালমাওযূআহ’-এর খণ্ডনও দেখতে পেয়েছি। গ্রন্থের শুরুতে এই দাবিও করা হয়েছে যে এতে উপরিউক্ত চার গ্রন্থেরই ‘রদ’ আছে। ছয়শ পৃষ্ঠার কম এ গ্রন্থে ‘সিলসিলাতুল আহাদীসিয যয়ীফা’র (যার খণ্ড সংখ্যা ২০) খণ্ডন কীভাবে হয়ে গেল তা বোধগম্য নয়।

যাই হোক, জনাবের খেদমতে দরখাস্ত করছি, আপনি এর খণ্ডনে কিছু লিখুন। মানুষ এর দ্বারা গোমরাহীর শিকার হচ্ছে। যদিও এ লেখকের লেখার আঙ্গিক শীলিত নয়। কিন্তু পাঠকের দিকে তাকিয়ে আমার মনে হয় কিছু লেখা উচিত। এর পাশাপাশি আপনার তত্ত্বাবধানে লেখা ‘প্রচলিত জাল হাদীস’ ছাড়া বাকি তিন গ্রন্থ সম্পর্কে আপনার মতামত জানারও ইচ্ছা জাগছে। আশা করছি এ দিকেও আপনি দৃষ্টি দেবেন।

মুহাম্মাদ এনামুল হাসান, নরসিংদী

১৩/১১/২০১৫ ঈ.

প্রমাণিত হাদিসকে জাল বানানোর স্বরূপ উন্মোচন
হাদীস বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর