বুধবার ৩০ নভেম্বর ২০২২, অগ্রাহায়ণ ১৬ ১৪২৯, ০৬ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

ইসলাম

পিতামাতার প্রতি সদ্ব্যবহার

 প্রকাশিত: ১৩:৫০, ২৭ অক্টোবর ২০২২

পিতামাতার প্রতি সদ্ব্যবহার

হাদিস নং- ১
পরিচ্ছেদঃ ১– পিতামাতার প্রতি সদ্ব্যবহার। আল্লাহ তা'আলা বলেনঃ “আমি মানুষকে তাহার পিতামাতার প্রতি সদ্ব্যবহার করার নির্দেশ প্রদান করিয়াছি।” – আল কুরআন, ২৯ঃ৮
১। আবু নাস্র আহমাদ ইবন মুহাম্মদ ইবনুল হাসান ইবন হামিদ ইবন হারূন ইবন আবদুল জাব্বার আল–বুখারী উরফে ইবনু নিয়াযেকী যখন ৩৭০ হিজরীর সফর মাসে হজ্জ উপলক্ষে আমাদের এখানে আসেন। তখন তিনি বর্ণনা করেন এই ভাবে যে, এই কিতাব “আল–আদবুল মুফরাদ” তাঁহার সম্মুখে পঠিত হয় এবং তিনি উহা অনুমােদন করেন। তিনি বলেন যে, আবুল খায়ের আহমদ ইবন মুহাম্মদ ইবনুল জলীল ইবন খালিদ ইবন হুরায়স আল–বুখারী আল–কিরমানী আল–আব্কাসী আল–বাজ্জার (র) ৩২২ হিজরীতে আমার নিকট বর্ণনা করেন যে, আবু আবদুল্লাহ মুহাম্মদ ইবন ইসমাঈল ইবন ইব্রাহীম ইবনুল মুগীরা ইবনুল আহনাফ আল–জুফ আল–বুখারী (র) তাহার নিকট বর্ণনা করিয়াছেন যে, আবুল ওয়ালীদ তাহার নিকট বর্ণনা করিয়াছেন, তাঁহার নিকট শুবা (র) বর্ণনা করিয়াছেন, ওয়ালীদ ইবন ঈজার (র) আমার নিকট বর্ণনা করিয়াছেনঃ আবু আম্র শায়বানীকে আমি বলিতে শুনিয়াছি এই বাটীর মালিক আমার নিকট বর্ণনা করিয়াছেন–বলিয়া তিনি হযরত আবদুল্লাহ্ (রা)–এর বাড়ীর দিকে ইঙ্গিত করিলেন––আমি রাসূলুল্লাহ (সা)–কে জিজ্ঞাসা করিলাম, আল্লাহর নিকট সব চাইতে প্রিয় আমল কি? ফরমাইলেনঃ নামায যথাসময়ে আদায়। আমি বলিলামঃ তারপর কোনটি ? ফরমাইলেনঃ পিতামাতার প্রতি সদ্ব্যবহার করা। আমি বলিলামঃ অতঃপর কোনটি ? ফরমাইলেনঃ আল্লাহর রাস্তায় জিহাদ করা। রাবী বলেন, তিনি আমাকে এইসব বর্ণনা করিলেন। যদি আমি আরাে অধিক প্রশ্ন করিতাম, তবে তিনি অবশ্যই আরও অধিক বর্ণনা করিতেন।
بَابُ قَوْلِهِ تَعَالَى‏:‏ ‏{‏وَوَصَّيْنَا الإِنْسَانَ بِوَالِدَيْهِ حُسْنًا‏}‏
أَخْبَرَنَا أَبُو نَصْرٍ أَحْمَدُ بْن مُحَمَّدِ بْنِ الْحَسَنِ بْنِ حَامِدِ بْنِ هَارُونَ بْنِ عَبْدِ الجْبَّارِ البُخَارِيُّ المَعْرُوفُ بِابْنِ النَّيَازِكِيِّ قِرَاءَةً عَلَيْهِ فَأَقْرَّ بِهِ قَدِمَ عَلَيْنَا حَاجًا فِي صَفَرَ سَنَةَ سَبْعِينَ وَثَلاثِمِئَةٍ، قَالَ‏:‏ أَخْبَرَناَ أَبُو الْخَيْرِ أَحْمَدُ بْنُ مُحَمِّدِ بْنِ الجَلِيلِ بْنِ خَالِدِ بْنِ حُرَيْثٍ البُخَارِيُّ الْكِرْمَانِيُّ الْعَبْقَسِيُّ البَزَّارُ سَنَة اثْنَتَيْنِ وَعِشْرِينَ وَثَلاَثِمِئَةٍ، قَالَ‏:‏ حَدَّثَنَا أَبُو عَبْدِ اللهِ مُحَمَّدُ بْنُ إِسْمَاعِيلَ بْنِ إِبْرَاهِيمَ بْنِ المُغَيرَةِ بْنِ الأَحْنَفِ الْجُعْفِيُّ البُخَاِرُّي قال‏:‏ حَدَّثَنَا أَبُو الْوَلِيدِ، قَالَ‏:‏ حَدَّثَنَا شُعْبَةُ قَالَ‏:‏ الْوَلِيدُ بْنُ الْعَيْزَارِ أَخْبَرَنِي قَالَ‏:‏ سَمِعْتُ أَبَا عَمْرٍو الشَّيْبَانِيَّ يَقُولُ‏:‏ حَدَّثَنَا صَاحِبُ هَذِهِ الدَّارِ، وَأَوْمَأَ بِيَدِهِ إِلَى دَارِ عَبْدِ اللهِ قَالَ‏:‏ سَأَلْتُ النَّبِيَّ صلى الله عليه وسلم‏:‏ أَيُّ الْعَمَلِ أَحَبُّ إِلَى اللهِ عَزَّ وَجَلَّ‏؟‏ قَالَ‏:‏ الصَّلاَةُ عَلَى وَقْتِهَا، قُلْتُ‏:‏ ثُمَّ أَيٌّ‏؟‏ قَالَ‏:‏ ثُمَّ بِرُّ الْوَالِدَيْنِ، قُلْتُ‏:‏ ثُمَّ أَيٌّ‏؟‏ قَالَ‏:‏ ثُمَّ الْجِهَادُ فِي سَبِيلِ اللهِ قَالَ‏:‏ حَدَّثَنِي بِهِنَّ، وَلَوِ اسْتَزَدْتُهُ لَزَادَنِي‏.‏

মন্তব্য করুন: