ব্রেকিং:
সংরক্ষিত নারী আসনের ভোট ৪ মার্চ ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় নির্বাচন উপলক্ষে ১৮ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন.

মঙ্গলবার   ১৫ অক্টোবর ২০১৯   আশ্বিন ২৯ ১৪২৬  

সর্বশেষ:
সংরক্ষিত নারী আসনের ভোট ৪ মার্চ ওয়েজবোর্ডের বিষয়টিকে আমরা বিশেষভাবে গুরুত্ব দিচ্ছি
১৮৯

প্রধানমন্ত্রীর সহায়তায় বাঁশখালীর ২৫২ পরিবার পেল নতুন বাড়ি

ডেস্ক রিপোর্ট

প্রকাশিত: ২৫ জানুয়ারি ২০১৯  

বাঁশখালীর ১৪ টি ইউনিয়নের ২৫২টি পরিবার পেল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ প্রকল্প ‘যার জমি আছে ঘর নেই তার নিজ জমিতে গৃহ নির্মাণ’ কার্যক্রমের আওতায় ২৫২টি নতুন গৃহ। 

২ কোটি ৫২ লক্ষ টাকা ব্যয়ে নির্মিত ২৫২ টি নতুন গৃহ নির্মাণ কার্যক্রম প্রায় শেষ পর্যায়ে। বাঁশখালী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোমেনা আক্তার এবং উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা আবুল কালাম মিয়াজী এ নির্মাণ কার্যক্রম পরিদর্শন ও তদারকি করছেন নিয়মিত। 

বাঁশখালীর পুকুরিয়া ইউনিয়ন, সাধনপুর ইউনিয়ন, খানখানাবাদ ইউনিয়ন, বাহারছড়া ইউনিয়ন, কালীপুর ইউনিয়ন, কাথরিয়া ইউনিয়ন, বৈলছড়ি ইউনিয়ন, সরল ইউনিয়ন, শীলকুপ ইউনিয়ন, চাম্বল ইউনিয়ন, গন্ডামারা ইউনিয়ন শেখেরখীল ইউনিয়ন, পুইছড়ি ইউনিয়ন ও ছনুয়া ইউনিয়নের প্রতিটি ওয়ার্ডে ২টি করে গৃহ নির্মাণ করা হচ্ছে এ প্রকল্পের আওতায় । 

‘যার জমি আছে ঘর নেই তার নিজ জমিতে গৃহ নির্মাণ’এ প্রকল্পের শুরুতে উপজেলা ভুমি অফিসের দায়িত্বশীল কর্মকর্তারা প্রতিটি ইউনিয়নের জনপ্রতিনিধিদের সাথে নিয়ে বিশেষ জরিপের মাধ্যমে তালিকা প্রনয়ণ করেন । 

পরবর্তীতে সে তালিকা নিশ্চিত করনের মাধ্যমে কার্যক্রম শুরু করা হয় । সাড়ে ১৬ফিট দৈর্ঘ এবং সাড়ে ১৫ফিট প্রস্ত সাইজের টিনশেড দিয়ে নির্মিত গৃহগুলোতে রয়েছে ৫ ফুট চওড়া বারান্দা। এছাড়া প্রতিটি গৃহের সাথে রয়েছে একটি করে নতুন স্যানিটারি লেট্রিনও।

এ ব্যাপারে কালীপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এড. শাহাদাত আলম বলেন, সাধারণ মানুষের ভাগ্য উন্নয়নে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অনেকগুলো উন্নয়ন প্রকল্প গ্রহণ করেছেন। তার একটি প্রকল্প ‘যার জমি আছে ঘর নেই তার নিজ জমিতে গৃহ নির্মাণ’ কার্যক্রম। আমার এলাকায় ১৮টি নতুন গৃহ প্রদান করা হয়েছে। যাদের দেওয়া হয়েছে তারা কখনও কল্পনা করেনি তাদের এত সুন্দর একটি নতুন বাড়ি হবে । তবে এ প্রকল্প আরো বেশি করে গৃহ নির্মাণ কার্যক্রম বাস্তবায়ন করবে এ প্রত্যাশা রাখি ।

তিনি আরো বলেন, বাঁশখালীর সাংসদ আলহাজ মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরীর প্রচেষ্টায় অনেক উন্নয়ন কাজ বাঁশখালীতে হচ্ছে তার একটি হলো এটি । উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা আবুল কালাম মিয়াজী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ‘যার জমি আছে ঘর নেই তার নিজ জমিতে গৃহ নির্মাণ’ প্রকল্পের মাধ্যমে বাঁশখালীতে ২৫২টি নতুন গৃহ নির্মাণ কাজ শেষ পর্যায়ে রয়েছে। এ কাজ সুন্দরভাবে বাস্তবায়নের জন্য আমরা নিয়মিত কাজের তদারকি করে যাচ্ছি। বাঁশখালী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোমেনা আক্তার বলেন, যার জমি আছে ঘর নেই তার নিজ জমিতে গৃহ নির্মাণ প্রকল্পের মাধ্যমে বাঁশখালীতে ২৫২টি নতুন গৃহ নির্মাণ কাজ শেষ পর্যায়ে রয়েছে ।

এ প্রকল্পে যাদের গৃহ দেওয়া হচ্ছে তারা অতীব দরিদ্র শ্রেণির লোক। এ কাজ যত বেশি বাস্তবায়ন হবে তত বেশি সাধারণ জনগণ উপকৃত হবে বলে তিনি জানান । তাছাড়া চট্রগ্রামের স্থায়ীত্বশীল উন্নয়ন সংস্থা ইপসা ও বাঁশখালীর খানখানাবাদে ৪৭টি, বাহারছড়ায় ১৩৭টি ও শেখেরখীলে ৪২টি ১৮ ফুট দৈর্ঘ্য, ১৬ ফুট প্রস্ত সাইজের গৃহ নির্মাণ করেন হ্যাবিট্যাট ইন্টারন্যাশানালের সহযোগিতায়।

এদিকে গত শুক্রবার বাংলাদেশ এনজিও ব্যুরোর মহাপরিচালক আবদুস সালাম, উপজেলা নির্বাহী কর্মকতা মোমেনা আক্তার, হ্যাবিট্যাট ফর হিউমিনিটি ইন্টারন্যালনাল বাংলাদেশের কান্টি ডিরেক্টর জন আমষ্ট্রং, ইপসার প্রধান নির্বাহী মো: আরিফুর রহমান, পরিচালক পলাশ কুমার চৌধুরী, মোরশেদুল আলম চৌধুরী, শেখেরখীল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ইয়াছিন, ইপসার প্রজেক্ট কো-অর্ডিনেটর কল্যাণ বড়ুয়াসহ অন্যান্য কর্মকর্তারা সরকার প্রদত্ত বাড়ি গুলো পরিদর্শন করেন ।


অনলাইন নিউজ পোর্টাল
অনলাইন নিউজ পোর্টাল
এই বিভাগের আরো খবর